۞ بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ ۞
অনুবাদকে টিক দিন        


সমগ্র কুরআনে সার্চ করার জন্য আরবি অথবা বাংলা শব্দ দিন...


তথ্য খুজুন: যেমন মায়িদা x
সুরা লিস্ট দেখুন

সূরা নাম (Sura Name): �������� ������������ -- Al-Buruj -- ������-���������������
Arabic Font Size:
আয়ত নাম্বার বায়ান ফাউন্ডেশন মুজিবুর রহমান তাইসীরুল কুরআন আরবি
1 কক্ষপথ বিশিষ্ট আসমানের কসম, শপথ রাশিচক্র সমন্বিত আকাশের, শপথ গ্রহ-নক্ষত্র শোভিত আকাশের وَ السَّمَآءِ ذَاتِ الْبُرُوْجِۙ﴿١ ﴾
2 আর ওয়াদাকৃত দিনের কসম, এবং প্রতিশ্রুত দিনের, আর সেদিনের যার ও‘য়াদা করা হয়েছে, وَ الْیَوْمِ الْمَوْعُوْدِۙ﴿٢ ﴾
3 আর কসম সাক্ষ্যদাতার এবং যার ব্যাপারে সাক্ষ্য দেয়া হবে তার, শপথ দ্রষ্টা ও দৃষ্টের। আর যে দেখে আর যা দেখা যায় তার শপথ وَ شَاهِدٍ وَّ مَشْهُوْدٍؕ﴿٣ ﴾
4 ধ্বংস হয়েছে গর্তের অধিপতিরা, ধ্বংস হয়েছিল কুন্ডের অধিপতিরা – ধ্বংস হয়েছে গর্ত ওয়ালারা قُتِلَ اَصْحٰبُ الْاُخْدُوْدِۙ﴿٤ ﴾
5 (যাতে ছিল) ইন্ধনপূর্ণ আগুন। ইন্ধনপূর্ণ যে কুন্ডে ছিল অগ্নি। (যে গর্তে) দাউ দাউ করে জ্বলা ইন্ধনের আগুন ছিল, النَّارِ ذَاتِ الْوَقُوْدِۙ﴿٥ ﴾
6 যখন তারা তার কিনারায় উপবিষ্ট ছিল। যখন তারা এর পাশে উপবিষ্ট ছিল; যখন তারা গর্তের কিনারায় বসে ছিল اِذْ هُمْ عَلَیْهَا قُعُوْدٌۙ﴿٦ ﴾
7 আর তারা মুমিনদের সাথে যা করছিল তার প্রত্যক্ষদর্শী। এবং তারা মু’মিনদের সাথে যা করেছিল তা প্রত্যক্ষ করছিল। আর তারা মু’মিনদের সাথে যা করছিল তা দেখছিল وَّ هُمْ عَلٰی مَا یَفْعَلُوْنَ بِالْمُؤْمِنِیْنَ شُهُوْدٌؕ﴿٧ ﴾
8 আর তারা তাদেরকে নির্যাতন করেছিল শুধুমাত্র এ কারণে যে, তারা মহাপরাক্রমশালী প্রশংসিত আল্লাহর প্রতি ঈমান এনেছিল। তারা তাদেরকে নির্যাতন করেছিল শুধু এ কারণে যে, তারা সেই মহিমাময় পরাক্রান্ত প্রশংসাভাজন আল্লাহর প্রতি ঈমান এনেছিল। তারা তাদেরকে নির্যাতন করেছিল একমাত্র এই কারণে যে, তারা মহাপরাক্রান্ত প্রসংসিত আল্লাহর প্রতি ঈমান এনেছিল। وَ مَا نَقَمُوْا مِنْهُمْ اِلَّاۤ اَنْ یُّؤْمِنُوْا بِاللّٰهِ الْعَزِیْزِ الْحَمِیْدِۙ﴿٨ ﴾
9 আসমানসমূহ ও যমীনের রাজত্ব যার। আর আল্লাহ প্রতিটি বিষয়ের প্রত্যক্ষদর্শী। আকাশমন্ডলী ও পৃথিবীর সার্বভৌমত্ব যাঁর, আর আল্লাহ সর্ব বিষয়ে দ্রষ্টা। আসমান ও যমীনের রাজ্বত্ব যাঁর, আর সেই আল্লাহ সব কিছুর প্রত্যক্ষদর্শী। الَّذِیْ لَهٗ مُلْكُ السَّمٰوٰتِ وَ الْاَرْضِ ؕ وَ اللّٰهُ عَلٰی كُلِّ شَیْءٍ شَهِیْدٌؕ﴿٩ ﴾
10 নিশ্চয় যারা মুমিন পুরুষ ও মুমিন নারীদেরকে আযাব দেয়, তারপর তাওবা করে না, তাদের জন্য রয়েছে জাহান্নামের আযাব। আর তাদের জন্য রয়েছে আগুনে দগ্ধ হওয়ার আযাব। যারা বিশ্বাসী নর নারীকে বিপদাপন্ন করেছে এবং পরে তাওবাহ করেনি, তাদের জন্য আছে জাহান্নামের শাস্তি ও দহন যন্ত্রণা (নির্ধারিত) রয়েছে। যারা মু’মিন পুরুষ ও নারীদের প্রতি যুলম পীড়ন চালায় অতঃপর তাওবাহ করে না, তাদের জন্য আছে জাহান্নামের শাস্তি, আর আছে আগুনে দগ্ধ হওয়ার যন্ত্রণা। اِنَّ الَّذِیْنَ فَتَنُوا الْمُؤْمِنِیْنَ وَ الْمُؤْمِنٰتِ ثُمَّ لَمْ یَتُوْبُوْا فَلَهُمْ عَذَابُ جَهَنَّمَ وَ لَهُمْ عَذَابُ الْحَرِیْقِؕ﴿١٠ ﴾
11 নিশ্চয় যারা ঈমান আনে এবং সৎকর্ম করে তাদের জন্য রয়েছে জান্নাত। যার তলদেশে প্রবাহিত হবে নহরসমূহ। এটাই বিরাট সফলতা। যারা ঈমান আনে ও সৎ কাজ করে তাদের জন্যই আছে জান্নাত, যার নিম্নে স্রোতস্বিনী প্রবাহিত; এটাই সুমহান, সফলকাম। যারা ঈমান আনে আর সৎকাজ করে তাদের জন্য আছে জান্নাত, যার পাদদেশ দিয়ে বয়ে চলেছে নির্ঝরিণী, এটা বিরাট সাফল্য। اِنَّ الَّذِیْنَ اٰمَنُوْا وَ عَمِلُوا الصّٰلِحٰتِ لَهُمْ جَنّٰتٌ تَجْرِیْ مِنْ تَحْتِهَا الْاَنْهٰرُ ؔؕ۬ ذٰلِكَ الْفَوْزُ الْكَبِیْرُؕ﴿١١ ﴾
12 নিশ্চয় তোমার রবের পাকড়াও বড়ই কঠিন। তোমার রবের শাস্তি বড়ই কঠিন। তোমার প্রতিপালকের পাকড়াও অবশ্যই বড় কঠিন। اِنَّ بَطْشَ رَبِّكَ لَشَدِیْدٌؕ﴿١٢ ﴾
13 নিশ্চয় তিনি সৃষ্টির সূচনা করেন এবং তিনিই পুনরায় সৃষ্টি করবেন। তিনিই অস্তিত্ব দান করেন ও পুনরাবর্তন ঘটান, তিনিই প্রথমবার সৃষ্টি করেন অতঃপর সৃষ্টির আবর্তন ঘটান। اِنَّهٗ هُوَ یُبْدِئُ وَ یُعِیْدُۚ﴿١٣ ﴾
14 আর তিনি অত্যন্ত ক্ষমাশীল, প্রেমময়। এবং তিনি ক্ষমাশীল, প্রেমময়, তিনি ক্ষমাশীল, প্রেমময়, وَ هُوَ الْغَفُوْرُ الْوَدُوْدُۙ﴿١٤ ﴾
15 আরশের অধিপতি, মহান। আরশের অধিপতি মহিমময়, ‘আরশের অধিপতি, মহা সম্মানিত। ذُو الْعَرْشِ الْمَجِیْدُۙ﴿١٥ ﴾
16 তিনি তা-ই করেন যা চান । তিনি যা ইচ্ছা করেন তা’ই করে থাকেন, যা করতে চান তাই করেন। فَعَّالٌ لِّمَا یُرِیْدُؕ﴿١٦ ﴾
17 তোমার কাছে কি সৈন্যবাহিনীর খবর পৌঁছেছে? তোমার নিকট কি পৌঁছেছে সৈন্য বাহিনীর বৃত্তান্ত – তোমার কাছে কি সৈন্য বাহিনীর খবর পৌছেছে? هَلْ اَتٰىكَ حَدِیْثُ الْجُنُوْدِۙ﴿١٧ ﴾
18 ফির‘আউন ও সামূদের। ফির‘আউন ও ছামূদের? ফেরাউন ও সামূদের? (আল্লাহর ক্ষমতার বিরুদ্ধে তাদের লোক-লস্কর কোন কাজে আসেনি)। فِرْعَوْنَ وَ ثَمُوْدَؕ﴿١٨ ﴾
19 বরং কাফিররা মিথ্যারোপে লিপ্ত। তবু কাফিরেরা মিথ্যা আরোপ করায় রত, তবুও কাফিররা সত্য প্রত্যাখ্যান করেই চলেছে। بَلِ الَّذِیْنَ كَفَرُوْا فِیْ تَكْذِیْبٍۙ﴿١٩ ﴾
20 আর আল্লাহ তাদের অলক্ষ্যে তাদের পরিবেষ্টনকারী। এবং আল্লাহ তাদের পরিবেষ্টন করে রয়েছেন। আর আল্লাহ আড়াল থেকে ওদেরকে ঘিরে রেখেছেন। وَّ اللّٰهُ مِنْ وَّرَآىِٕهِمْ مُّحِیْطٌۚ﴿٢٠ ﴾
21 বরং তা সম্মানিত কুরআন। এটা কুরআন, (কাফিররা অমান্য করলেও এ কুরআনের কোনই ক্ষতি হবে না) বস্তুতঃ এটা সম্মানিত কুরআন, بَلْ هُوَ قُرْاٰنٌ مَّجِیْدٌۙ﴿٢١ ﴾
22 সুরক্ষিত ফলকে (লিপিবদ্ধ)। সংরক্ষিত ফলকে লিপিবদ্ধ। সুরক্ষিত ফলকে লিপিবদ্ধ। فِیْ لَوْحٍ مَّحْفُوْظٍ﴿٢٢ ﴾