۞ بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ ۞
অনুবাদকে টিক দিন        


সমগ্র কুরআনে সার্চ করার জন্য আরবি অথবা বাংলা শব্দ দিন...


তথ্য খুঁজুন: যেমনঃ মায়িদা x
সুরা লিস্ট দেখুন

সূরা নাম (Sura Name): �������� �������������� -- At-Takwir -- ������-������������������
আয়াত সংখ্যা: 29
আয়াত নাম্বার আয়াত আরবি
1 সূর্য যখন নিস্প্রভ হবে,
[ ������-������������������: 1 ]
اِذَا الشَّمْسُ كُوِّرَتْ۪ۙ﴿١ ﴾
2 যখন নক্ষত্ররাজি খসে পড়বে,
[ ������-������������������: 2 ]
وَ اِذَا النُّجُوْمُ انْكَدَرَتْ۪ۙ﴿٢ ﴾
3 পর্বতসমূহকে যখন চলমান করা হবে,
[ ������-������������������: 3 ]
وَ اِذَا الْجِبَالُ سُیِّرَتْ۪ۙ﴿٣ ﴾
4 যখন পূর্ণ-গর্ভা উষ্ট্রী উপেক্ষিত হবে,
[ ������-������������������: 4 ]
وَ اِذَا الْعِشَارُ عُطِّلَتْ۪ۙ﴿٤ ﴾
5 যখন বন্য পশুগুলি একত্রীকৃত হবে;
[ ������-������������������: 5 ]
وَ اِذَا الْوُحُوْشُ حُشِرَتْ۪ۙ﴿٥ ﴾
6 এবং সমুদ্রগুলিকে যখন উদ্বেলিত করা হবে;
[ ������-������������������: 6 ]
وَ اِذَا الْبِحَارُ سُجِّرَتْ۪ۙ﴿٦ ﴾
7 দেহে যখন আত্মা পুনঃসংযোজিত হবে,
[ ������-������������������: 7 ]
وَ اِذَا النُّفُوْسُ زُوِّجَتْ۪ۙ﴿٧ ﴾
8 যখন জীবন্ত প্রোথিতা কন্যাকে জিজ্ঞেস করা হবে –
[ ������-������������������: 8 ]
وَ اِذَا الْمَوْءٗدَةُ سُىِٕلَتْ۪ۙ﴿٨ ﴾
9 কি অপরাধে তাকে হত্যা করা হয়েছিল?
[ ������-������������������: 9 ]
بِاَیِّ ذَنْۢبٍ قُتِلَتْۚ﴿٩ ﴾
10 যখন ‘আমলনামা উন্মোচিত হবে,
[ ������-������������������: 10 ]
وَ اِذَا الصُّحُفُ نُشِرَتْ۪ۙ﴿١٠ ﴾
11 যখন আকাশের আবরণ অপসারিত হবে,
[ ������-������������������: 11 ]
وَ اِذَا السَّمَآءُ كُشِطَتْ۪ۙ﴿١١ ﴾
12 জাহান্নামের আগুন যখন উদ্দীপিত করা হবে,
[ ������-������������������: 12 ]
وَ اِذَا الْجَحِیْمُ سُعِّرَتْ۪ۙ﴿١٢ ﴾
13 এবং জান্নাত যখন নিকটর্বতী করা হবে,
[ ������-������������������: 13 ]
وَ اِذَا الْجَنَّةُ اُزْلِفَتْ۪ۙ﴿١٣ ﴾
14 তখন প্রত্যেক ব্যক্তিই জানবে সে কি নিয়ে এসেছে।
[ ������-������������������: 14 ]
عَلِمَتْ نَفْسٌ مَّاۤ اَحْضَرَتْؕ﴿١٤ ﴾
15 কিন্তু না, আমি প্রত্যাবর্তনকারী তারকাপুঞ্জের শপথ করছি!
[ ������-������������������: 15 ]
فَلَاۤ اُقْسِمُ بِالْخُنَّسِۙ﴿١٥ ﴾
16 যা গতিশীল ও স্থিতিবান;
[ ������-������������������: 16 ]
الْجَوَارِ الْكُنَّسِۙ﴿١٦ ﴾
17 শপথ রাতের যখন ওর আবির্ভাব হয়,
[ ������-������������������: 17 ]
وَ الَّیْلِ اِذَا عَسْعَسَۙ﴿١٧ ﴾
18 আর উষার যখন ওর আবির্ভাব হয়,
[ ������-������������������: 18 ]
وَ الصُّبْحِ اِذَا تَنَفَّسَۙ﴿١٨ ﴾
19 নিশ্চয়ই এই কুরআন সম্মানিত বার্তাবহের আনীত বাণী।
[ ������-������������������: 19 ]
اِنَّهٗ لَقَوْلُ رَسُوْلٍ كَرِیْمٍۙ﴿١٩ ﴾
20 যে সামর্থশালী, আরশের মালিকের নিকট মর্যাদাসম্পন্ন,
[ ������-������������������: 20 ]
ذِیْ قُوَّةٍ عِنْدَ ذِی الْعَرْشِ مَكِیْنٍۙ﴿٢٠ ﴾
21 যাকে সেখানে মান্য করা হয় এবং যে বিশ্বাসভাজন।
[ ������-������������������: 21 ]
مُّطَاعٍ ثَمَّ اَمِیْنٍؕ﴿٢١ ﴾
22 এবং তোমাদের সহচর উন্মাদ নয়,
[ ������-������������������: 22 ]
وَ مَا صَاحِبُكُمْ بِمَجْنُوْنٍۚ﴿٢٢ ﴾
23 সেতো তাকে স্পষ্ট দিগন্তে অবলোকন করেছে।
[ ������-������������������: 23 ]
وَ لَقَدْ رَاٰهُ بِالْاُفُقِ الْمُبِیْنِۚ﴿٢٣ ﴾
24 সে অদৃশ্য বিষয় সম্পর্কে বর্ণনা করতে কার্পন্য করেনা।
[ ������-������������������: 24 ]
وَ مَا هُوَ عَلَی الْغَیْبِ بِضَنِیْنٍۚ﴿٢٤ ﴾
25 এবং ইহা অভিশপ্ত শাইতানের বাক্য নয়।
[ ������-������������������: 25 ]
وَ مَا هُوَ بِقَوْلِ شَیْطٰنٍ رَّجِیْمٍۙ﴿٢٥ ﴾
26 সুতরাং তোমরা কোথায় চলেছ?
[ ������-������������������: 26 ]
فَاَیْنَ تَذْهَبُوْنَؕ﴿٢٦ ﴾
27 এটাতো শুধু বিশ্বজগতের জন্য উপদেশ –
[ ������-������������������: 27 ]
اِنْ هُوَ اِلَّا ذِكْرٌ لِّلْعٰلَمِیْنَۙ﴿٢٧ ﴾
28 তোমাদের মধ্যে যে সরল পথে চলতে চায় তার জন্য।
[ ������-������������������: 28 ]
لِمَنْ شَآءَ مِنْكُمْ اَنْ یَّسْتَقِیْمَؕ﴿٢٨ ﴾
29 তোমরা ইচ্ছা করবেনা, যদি জগতসমূহের রাব্ব আল্লাহ ইচ্ছা না করেন।
[ ������-������������������: 29 ]
وَ مَا تَشَآءُوْنَ اِلَّاۤ اَنْ یَّشَآءَ اللّٰهُ رَبُّ الْعٰلَمِیْنَ﴿٢٩ ﴾